কলেজের ইতিহাস

এলাকার কতিপয় শিক্ষানুরাগী বেসরকারিভাবে খাগড়াছড়িতে একটি কলেজ প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ গ্রহণ করেন। তারই প্রেক্ষিতে ১৯৭৪ সালে বেসরকারিভাবে খাগড়াছড়ি কলেজ প্রতিষ্ঠিত হয়। ১০ মার্চ ১৯৭৪ সালে এর কার্যক্রম শুরু হয়। মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষার অল্পসংখ্যক ছাত্র-ছাত্রী এবং শিক্ষকের সহযোগিতায় পানখাইয়া পাড়া এলাকায় অত্র কলেজের কার্যক্রম শুরু হয়। এর কয়েক বছর পর বর্তমান স্থানে কলেজটি স্থানান্তরিত হয়। ১লা মার্চ ১৯৮০ সালে কলেজটি জাতীয়করণ করা হয়।

খাগড়াছড়ির-পানছড়ি এবং খাগড়াছড়ি-চট্টগ্রাম সড়কের পাশে প্রায় ৯.০০ একর জায়গাজুড়ে খাগাড়ছড়ি কলেজ অবস্থিত। বর্তমানে এই কলেজে উচ্চ মাধ্যমিক মানবিক, ব্যবসায় শিক্ষা এবং বিজ্ঞান বিভাগে বি.এ/বি.বি.এস/বি.এস.এস ডিগ্রী (পাস) কোর্সে পাঠদান করা হয়। এছাড়াও ২০০৮ সালে রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিষয়ে সম্মান কোর্স ২০১০ সালে ইতিহাস বিষয়ে সম্মান কোর্স চালু হয়। বর্তমানে এখানে প্রায় সাড়ে তিন হাজার ছাত্র-ছাত্রী অধ্যয়ন করে। অত্র কলেজে অধ্যক্ষ ও উপাধ্যক্ষসহ মোট ৪৬টি পদ রয়েছে এবং তৃতীয় শ্রেণীর ০৬ জন এবং ৪র্থ শ্রেণীর ১২ জন কর্মচারীর পদ রয়েছে।

কলেজ একটি দ্বিতল প্রশাসনিক ভবন, একটি দ্বিতল, একটি তিনতলা একাডেমিক ভবন, একটি কম্পিউটার ল্যাবরেটরী, একটি বিজ্ঞান ভবন ও আধুনিক গ্রন্থাগার রয়েছে। তাছাড়া খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজ কেন্দ্রে বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকটি কোর্স চালু রয়েছে। নকলমুক্ত পরীক্ষা কেন্দ্র হিসেবে এই কলেজ কেন্দ্রের সুনাম রয়েছে।

বর্তমানে প্রতিযোগিতার যুগে উন্নতমানের শিক্ষার কোন বিকল্প নেই। বিশ্বায়নের সাথে তাল মিলিয়ে প্রতিষ্ঠাকাল থেকে এই কলেজ সৎ, দেশপ্রেমিক এবং সুনাগরিক গড়ে তোলার কাজে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছে।